ইউটিউব কথন

Standard

টিউব সাইটগুলোর মধ্যে ইউটিউব সবসময়ই শীর্ষে ছিল। ভিডিও স্ট্রিমিংয়ের এই আসাধারন সাইটটি ব্লগারদের জন্যও অনেক গুরুত্ব বহন করে। এই পোস্টে ইউটিউব ব্যাবহারের কিছু “টিপস অ্যান্ড ট্রিকস” দেয়া হল।




ভিডিও ডাউনলোড

ইউটিউব থেকে ভিডিও ডাউনলোডের কম করে হলেও হাজারখানেক নিয়ম আছে। সবচেয়ে জনপ্রিয় হচ্ছে OK পদ্ধতি।

ধরুন আপনি http://www.youtube.com/watch?v=5baDknt6Z7w এই ভিডিওটি যদি ডাউনলোড করতে চান তাহলে এড্রেসবারে youtube কথাটির আগে OK লিখে Enter চাপলেই হবে। অর্থাৎ http://www.OKyoutube.com/watch?v=5baDknt6Z7w লিখে Enter চাপলেই দেখবেন ভিডিওটি ডাউনলোড হচ্ছে।

এরকম আরও নিয়মের মাঝে একটি হচ্ছে OK এর জায়গায় kiss লিখা। অর্থাৎ যদি http://www.youtube.com/watch?v=5baDknt6Z7w ভিডিওটা ডাউনলোড করতে হয় তবে এড্রেসবারে http://www.youtube.com/watch?v=5baDknt6Z7w লিখলেই চলবে!

আপনি যদি কোন নির্দিষ্ট ফরম্যাটের ভিডিও ডাউনলোড করতে চান, তাহলে youtube000 পদ্ধতিটি আপনার উপযোগি। এখানে, যদি লিঙ্ক হয় http://www.youtube.com/watch?v=5baDknt6Z7w তাহলে ডাউনলোডের লিঙ্ক হবে http://www.youtube.com000/watch?v=5baDknt6Z7w । এখানে flv, mp4 , 3gp তিনটা ফরম্যাট থেকে আপনাকে বেছে নিতে হবে ।

আর আপনার যদি হাইকোয়ালিটি ভিডিও(HQ/HD) প্রয়োজন হয়, তাহলে youtube এর জায়গায় keephd লিখলে অর্থাৎ http://www.youtube.com/watch?v=5baDknt6Z7w এটা ডাউনলোড করতে http://www.keepHD.com/watch?v=5baDknt6Z7w লিখলে আপনি Flash, For mobile, Mp4, HQ MP4(720p), HQ MP4(1080p) ফরমাটের ডাউনলোড লিঙ্ক পেয়ে যাবেন।

এই সুবিধাগুলো পেতে হলে অবশ্যই আপনার কম্পিউটারে জাভা থাকতে হবে। না থাকলে, সেটি পাবেন এখানে




হাই কোয়ালিটি ভিডিও দেখা

ইউটিউবের সব ভিডিও হাই কোয়ালিটিতে থাকে না। কিন্তু আপনি ইচ্ছা করলে তা হাই কোয়ালিটিতে দেখতে পারেন। এর জন্য আপনাকে যা করতে হবে তা হচ্ছে,
url এর শেষে ‘&fmt=18′ অথবা ‘&fmt=22′ যোগ করতে হবে।

উদাহরনঃ http://www.youtube.com/watch?v=Lm3mS6rvsv তে ভিডিও টি সাধারণ কোয়ালিটিতে আছে এক্ষেত্রে আপনি http://www.youtube.com/watch?v=Lm3mS6rvsv&fmt=18 অথবা http://www.youtube.com/watch?v=VT4E_BkEx5k&fmt=22 তে হাই কোয়ালিটি ভিডিও পাবেন।




হাই-কোয়ালিটি ভিডিও এমবেড করা

এর জন্য শেষে “&ap=%26fmt=18″ অথবা “&ap=%26fmt=22″ যোগ করতে হবে।




ভিডিওর নির্দিষ্ট অংশ দেখা

ধরুন, আপনার পুরো ভিডিওটি দেখার দরকার নেই। ১ মিনিট ২২ সেকেন্ড পর থেকে দেখতে চান। সেক্ষেত্রে url এর শেষে #t=01m22s (#t=XXmYYs for XX mins and YY seconds) যোগ করুন।




ভিডিওর নির্দিষ্ট অংশ এমবেড করা

এটি ব্লগারদের জন্য খুবই গুরুত্বপুর্ন। ধরুন আপনি একটি ৩০ মিনিটের ভিডিও এমবেড করেছেন, কিন্তু সেটির শেষ ৫ মিনিট আপনার পোস্টের প্রয়োজন। এটিকে খুজে বের করতে পাঠকদের ( এমনকি আপনাকেও ) ঝামেলা পোহাতে হয়। এর ছেয়ে ঢের ভালো ভিডিওটির ২৫ মিনিট ( ২৫*৬০=১৫০০ সেকেন্ড ) পর থেকে এমবেড করুন। সেজন্য আপনার url এর শেষে ‘&start=1500′ যোগ করলেই চলবে।




এমবেডেড ভিডিও অটোপ্লে করা

কোন সাইটে কোন ভিডিও এমবেড করার পর, সাধারণত ভিডিওর উপর ক্লিক না করা পর্যন্ত শুরু হয় না। শেষে ‘&autoplay=1′ যোগ করলে পেজ লোড হবার সাথে সাথে ভিডিও প্লে হওয়া আরম্ভ করবে। আর ক্লিক করার দরকার হবে না।




এমবেডেড ভিডিও অটোমেটিক্যালি রি-প্লে করা

‘&loop=1′ যোগ করে আপনি এটা করতে পারেন। অর্থাৎ ভিডিওটি দেখা শেষ হয়ে গেলে এটি আবার শুরু হবে। আবার শেষ হলে আবার, তারপর আবার :D




রিলেটেড ভিডিও ডিজেবল করা

ইউটিউবের ভিডিও শেষ হবার পর পরই বিরক্তিকর অনেকগুল রিলেটেড ভিডিও এসে হাজির হয়। এক্ষেত্রে ‘&rel=0′ যোগ করলেই রিলেটেড ভিডিও ডিজেবল।




এমপিথ্রি ডাউনলোড

এই সাইটে গিইয়ে youtube link টি দিলেই সেখান থেকে mp3 ডাউনলোড লিঙ্ক পাওয়া যাবে।




লেখাটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ :)।

About these ads

3 thoughts on “ইউটিউব কথন

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s